দশদিক মহাদেশ

হোম খেলাধুলাপঞ্চম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যতো রেকর্ড

পঞ্চম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে যতো রেকর্ড

২২ দিনের পরিক্রমা শেষে রোববার পর্দা নেমেছে পঞ্চম টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের। বাংলাদেশে ১৬ মার্চ থেকে ৬ এপ্রিল পর্যন্ত অনুষ্ঠিত এই বিশ্বকাপে বেশ কিছু রেকর্ড তৈরি হয়েছে। যাতে ভারত, পাকিস্তান, ইংল্যান্ড ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের পর নতুন চ্যাম্পিয়ন হিসেবে শ্রীলঙ্কাকে পেয়েছে ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ততম ফরম্যাটটি। আসুন সদ্য শেষ হওয়া বিশ্বকাপটির কিছু রেকর্ড এক নজরে দেখে নেই-

দলীয় রেকর্ড:
• সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ- দক্ষিণ আফ্রিকা (১৯৬/৫, প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড)।
• এক ম্যাচে সর্বোচ্চ রান- দক্ষিণ আফ্রিকা-ইংল্যান্ড ম্যাচে (৩৮৯ রান)।
• এক ম্যাচে সর্বনিন্ম রান- নেদারল্যান্ডস-শ্রীলঙ্কা (৭৯ রান)।
• সবচেয়ে বড় ব্যবধানে জয়ী- বাংলাদেশ, নয় উইকেট ও ৪৮ বল বাকি থাকতে (প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান), ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ৮৪ রানের ব্যবধানে (প্রতিপক্ষ পাকিস্তান)।
• এক ইনিংসে সর্বোচ্চ অতিরিক্ত- ওয়েস্ট ইন্ডিজ, ১৯ রান (প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ)।

ব্যাটিং রেকর্ড:
• সর্বোচ্চ রান- বিরাট কোহলি, ভারত। ছয় ইনিংসে ১০৬.৩৩ গড়ে ৩১৯ রান সংগ্রহ করেন। সর্বোচ্চ সংগ্রহ ৭৭ রান। হাফ সেঞ্চুরি ৪টি।
• এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত সংগ্রহ- অ্যালেক্স হেলস (ইংল্যান্ড)। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ৬৪ বলে অপরাজিত ১১৬ রান করেন ইংলিশ এই ওপেনার।
• সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ব্যাটিং গড়- বিরাট কোহলি (ভারত)। গেল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ১০৬.৩৩ গড়ে ৩১৯ রান করেন দিল্লির এই ব্যাটসম্যান।
• সর্বোচ্চ স্ট্রাইক রেট- সুনীল নারাইনের। ক্যারিবিয়ান এই তারকা এক ইনিংসে ব্যাট করে অপরাজিত সাত রান করেন। স্ট্রাইক রেট ৩৫০। তার ঠিক পরের স্থানেও আরেক ক্যারিবিয়। তিনি ড্যারেন সামি। উইন্ডিজ অধিনায়কের স্ট্রাইক রেট ২২৪.৪৪।
• সবচেয়ে বেশি ফিফটি- ভারতের বিরাট কোহলির। চারটি হাফ সেঞ্চুরি করেন তিনি।
• সবচেয়ে বেশি ডাক- বাংলাদেশের জিয়াউর রহমান ও হংকংয়ের ইরফান আহমেদের। দুই বার করে।
• গোটা টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি ছয় নেদারল্যান্ডের স্টিফেন মাইবার্গের, ১৩টি। ডাচ তারকার পরের আসনটি অসি হার্টহিটার গ্লেন ম্যাক্সওয়েলের। তার উইলো থেকে ১২টি ছয় এসেছে।

বোলিং রেকর্ড:
• গোটা টুর্নামেন্টে সবচেয়ে বেশি ১২টি করে উইকেট দক্ষিণ আফ্রিকার ইমরান তাহির ও নেদারল্যান্ডসের আহসান মালিকের।
• এক ইনিংসে সবচেয়ে ভালো বোলিং ফিগার- শ্রীলঙ্কার রঙ্গনা হেরাথের। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৩.৩ ওভার বোলিং করে মাত্র ৩ রানের বিনিময়ে পাঁচটি উইকেট নেন তিনি।
• সবচেয়ে মিতব্যয়ী ইকোনমি রেট- আফগানিস্তানের মিরওয়াইস আশরাফের। গোটা টুর্নামেন্টে চার ওভার বল করে ১৪ রান দেন তিনি। ইকোনমি রেট ৩.৫০।

অন্যান্য:
• সবচেয়ে বেশি ডিসমিসাল- দক্ষিণ আফ্রিকান উইকেটকিপার কুইন্টন ডি ককের। পাঁচ ম্যাচে আটটি ডিসমিসাল তার দখলে।
• সবচেয়ে বেশি ক্যাচ- ওয়েস্ট ইন্ডিজের ডোয়াইন ব্রাভোর। পাঁচ ম্যাচে সাতটি ক্যাচ নিয়েছেন তিনি।
• সবচেয়ে বড় পার্টনারশিপ ইংল্যান্ডের অ্যালেক্স হেলস ও এউইন মর্গানের। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তৃতীয় উইকেট জুটিতে ১৫২ রান করেন তারা।


পাতাটি ২৯৩১ বার প্রদর্শিত হয়েছে।