দশদিক মাসিক

হোম মানুষ বিষয়ক সিরিজি ছড়া(৩০তম সংখ্যা)

মানুষ বিষয়ক সিরিজি ছড়া(৩০তম সংখ্যা)

বদরুল বোরহান

৭৮.
ধনীর গুদামে জমা হয় শুধু
গরীবের হাঁড়-গোড়,
কিন্তু এখন ঘুরে গেছে সেই
ঘটনার সব মোড়।

ঋণখেলাপী ও চোরাকারবারি
আছে যতো ভুঁইফোঁড়,
জানেনা এখনো, নিজ হাতে তারা
খুঁড়ছে নিজের গোর।


৭৯.
মানুষের লাশ থানায় পঁচায়
শুকায় যখন মর্গে,
লাশ পেতে হায় হয়রান হয়
লাশের স্বজনবর্গে।

দারোগা বলেন, জলদি গিয়েই
বড় কর্তাকে ধরগে,
নতুবা এখনি লাশের মতোন
তুইও ভাগাড়ে মরগে।


৮০.
ধর্মে বিভেদ
বর্ণে বিভেদ
বিভেদ জাতি সত্বায়,
সব বিভেদের
দায়ভারটাতো
বিবেক-বৃদ্ধিমত্তায়।

বৃদ্ধি-বিবেক
আছেই কেবল
সব মানুষের মজ্জায়,
সেই মানুষের
সিংহাসনটা
লুটায় ধুলোর শয্যায়।


৮১.
সব মানুষের ভেতর আছে
একটা পশুর বাস,
মাঝে মাঝে সে পশুটা
ঘটায় সর্বনাশ।

সে পশুকে যে করে হোক
করতে হবে বশ:
তবেই তুমি মানুষ হবে
বাড়বে খ্যাতি-যশ।


৮২.
সব মানুষের
ঘাড়ে থাকে
একটা আজব ভূত,
তার কারণে
সবার মনে
বেজায় রকম খুঁত।

কেউ জানে না
সে ভূতটা যে
কোন সে ভূতের পুত?
তোমার আমার
মনকে নিয়ে
খেলে সে কুত্কুত্।

বুদ্ধি-বিবেক
আদর্শকে
করে সে স্থানচ্যুত,
বিরক্তিতে
আমরা বলি:
ধুত্তোরি ছাই ধ্যুত।

পাতাটি ৩৬৩৯ বার প্রদর্শিত হয়েছে।